A4EP এর বিবৃতি- গ্রান্ড বার্গেইন-২ এর ভবিষ্যত গতিপথ পাশাপাশি পথ চলার এখনই সময়

0

ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিটারিয়ান সামিট (World Humanitarian Summit) আলোচনা প্রক্রিয়া স্থানীয় ও জাতীয় সংস্থাসমূহকে বিশ্ব মানবিক কর্মকান্ডে (World Humanitarian System) তাদের অভিজ্ঞতা ও স্থানীয় পর্যায়ে এর প্রভাব সম্পর্কে কথা বলার সুযোগ করে দিয়েছে। ২০১৬ সালের ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিটারিয়ান সামিট (World Humanitarian Summit) প্রস্তুতির অংশ হিসেবে, হিউম্যানিটারিয়ান ফাইনান্সিং (Humanitarian Financing) এর উচ্চ পর্যায়ের প্যানেল মানবিক পর্যায়ে অর্থায়নের ক্ষেত্রে যে বিভেদ/ ব্যবধান রয়েছে তা কমিয়ে আনতে কিছু সুপারিশ করেছে। তাদের রিপোর্টে চাহিদার মাত্রা কমিয়ে এনে কিভাবে মানবিক কর্মকান্ডে স¤পদ ও দক্ষতা প্রাধ্যন্য দেওয়া যায় এবং কিভাবে আরো কার্যকর বাস্তবায়ন করা যায় সে বিষয়ে কিছু সুপারিশ করা হয়েছে ।
গ্রান্ড বার্গেইন (Grand Bargain) হলো এমন একটি অনন্য চুক্তি বা প্রতিশ্রুতি যেটি ২০১৬ সালের মে মাসে ইস্তাম্বুলে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিটারিয়ান সামিট চলাকালীন সময়ে আনুষ্ঠানিকভাবে অবমুক্ত করা হয়। গ্রান্ড বার্গেইন হলো কিছু বৃহৎ দাতা সংস্থা ও মানবিক সংস্থা/ সংগঠনগুলোর মধ্যে স্বাক্ষরিত এমন একটি চুক্তি যেখানে উভয় পক্ষ যাদের অধিকতর সাহায্য প্রয়োজন তাদের প্রতি সহযোগিতায় হাত বাড়িয়ে দিতে এবং মানবিক কার্যক্রম আরো বেশি কার্যকর ও সময়োপযোগী করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
আগস্ট ২০২০, এলায়েন্স ফর এমপাওয়ারিং পার্টনারশিপ (Alliance for Empowering Partnership- A4EP) গ্রান্ড বার্গেইন এর ৬৩তম স্বাক্ষরকারী হিসেবে স্বাক্ষর করে। এলায়েন্স ফর এমপাওয়ারিং পার্টনারশিপ (Alliance for Empowering Partnership- A4EP) এর রূপকল্প হলো এমন একটি পৃথিবী গড়ে তোলা যেখানে টেকসই, স্বাধীন ও জবাবদিহিতামূলক স্থানীয় সংস্থাগুলো এমন একটি সমাজ গঠনে কাজ করবে যেখানে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ, সমতা ও সামাজিক ন্যায্যতা বজায় থাকবে। বিশেষ করে, সহায়তা গ্রহণকারী দেশসমূহ ত্রাণ ও মানবিক সহায়তা প্রদানের ক্ষেত্রে যাতে নের্তৃত্বের ভূমিকা পালন করতে পারে।
আমাদের লক্ষ্য হলো, স্থানীয় পর্যায়ে গড়ে ওঠা সংস্থাসমূহ ও তাদের প্রতিনিধি এবং বৈশ্বিক সক্রিয় অংশগ্রহণকারীদের/ প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে একটি সক্রিয় ও কার্যকর নেটওয়ার্ক তৈরি করা। তথ্য প্রদান, অভিজ্ঞতা বিনিময়, উত্তম অনুশীলন এর মাধ্যমে সাউথ-সাউথ কোঅপারেশন (South-South Cooperation আরো সংগঠিত করা এবং সংবর্ধিতকরণে একটি প্লাটফর্ম (Platform) হিসেবে কাজ করা। এছাড়া বৈশ্বিক আলোচনার বিষয় যেমন স্থানীয়করণ, অংশগ্রহণ বিপ্লব, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা আনয়নে বিভিন্ন গবেষণা, আলোচনা, তর্ক-বিতর্ক, ও এ্যাডভোকেসি কৌশলগুলোগু নিয়ে কাজ করা।
গ্রান্ড বার্গেইন-২ এর ভবিষ্যতের দিকনির্দেশনায় A4EP (Alliance for Empowering Partnership) সদস্যদের দৃষ্টিভঙ্গি ও অবস্থান সুস্পষ্ট করার জন্য এই লেখাটি / প্রবন্ধটি প্রস্তুত করা হয়েছে। বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, ফ্যাসিলিটেশন গ্রুপ, মন্ত্রীবর্গ, নীতি ও স্বাক্ষরকারী প্রতিষ্ঠান যারা গ্রান্ড বার্গেইনের ভবিষ্যতের দিকনির্দেশকে সমর্থন করে তাদের উদ্দেশ্যই মূলত এই প্রবন্ধটি লেখা হয়েছে। ভবিষ্যতের গ্রান্ড বার্গেইন আলোচনায় যে সকল বিষয়সমূহকে অন্তর্ভুক্তি ও অধিক প্রাধ্যান্য দেওয়া উচিত সেই সকল বিষয়সমূহ এই প্রবন্ধে আলোচনা করা হবে। [বিস্তারিত রিপোর্ট]

Social Sharing

Leave A Reply