ToGETHER প্রকল্প বিষয়ে সচিবালয়/কোস্ট এর ব্যাখ্যা

0

সম্মানিত BDCSO Process সদস্যবৃন্দ,
১. সম্প্রতি কোস্ট ট্রাস্ট এর ToGETHER প্রকল্প নিয়ে বিক্ষিপ্তভাবে কিছু প্রশ্ন উত্থাপিত হয়েছ। যা দায়গ্রস্ততার জায়গা থেকে সচিবালয়/COAST এর উত্তর দেয়ার প্রয়োজন রয়েছে বলে আমরা মনে করি। প্রশ্নগুলো নিন্মরূপ,
– BDCSO Process সদস্যবৃন্দ স্বাধীন NGO/CSO গড়ে তুলতে চায়, সেক্ষেত্রে এই প্রকল্প কি বিরোধার্থক নয় ? এ ধরনের প্রকল্প কি সন্দহের তৈরি করে না ?
– আমরা যখন ৮টি ডিভিশন নিয়ে কাজ করি, সেখানে কেন ৫টি ডিভিশন নিয়ে কাজ করা হচ্ছে? এটা কি এক ধরনের পক্ষপাতিত্ব নয়?
২. যদিও আমরা বাংলাদেশ একটি স্বাধীন ও স্বনির্ভর NGO/CSO গড়ে তুলতে চাই। আমরা বৈদেশিক সহায়তার ভিত্তিতে NGO/CSO গড়ে তোলার প্রচেষ্টাকে আমরা উবহু করি না। হয়তো বৈদেশিক সহায়তা কমে যাবে, কিন্তু এটা একদম বন্ধ হয়ে যাবে না। বৈদেশিক সহায়তায় অংশ নেওয়া অনেকটা, Global NGO/CSO Movement এর সাথে যুক্ত হওয়া বৈ কি। নিজদেরকে সারা পৃথিবিতে থেকে বিচ্ছিন্ন করলে কোন ভাবেই উন্নতি করা যায় না। আমাদেরকে দেশপ্রমিক হওয়ার সাথে সাথে আন্তর্জাতিকবাদীও হতে হবে। আন্তর্জাতিক আন্দোলনগুলোর সাথে আমাদেরকে যুক্ত থাকতে হবে।
৩. সে কারণে আন্তর্জাতিকভাবে Principle of Partnership, Charter for Change, Grand Bargain এর মাধ্যমে Localization Movement এর উদ্ভব ঘটেছে। যেখানে আন্তর্জাতিক নেতৃবৃন্দ বিশেষ করে, INGO ও UN একমত হয়েছেন। এবং যার ভিত্তিতে আমরা একটা জনমতের চাপ তৈরি করে চলেছি। সাথে সাথে একটি স্বাধীন ও স্বনির্ভর NGO/CSO গঠনের জন্য প্রচারণায়ও চালিয়ে যাচ্ছি।
. INGO এবং UN এর দরকার আছে বলে আমরা মনে করি, শুধুমাত্র আমাদের দাবি হচ্ছে, তারা আন্তর্জাতিকভাবে নেতৃত্ব দিক। দেশে ও স্থানীয়ভাবে আমাদের নেতৃত্বের পথকে প্রশস্ত করে দিক। সেজন্য তাদের সাথে Positive Engagement এর দরকার রয়েছে অর্থাৎ তাদের সাথে কথা বলতে হবে, কাজ করতে হবে, কিন্তু Critical Opinion কে ফেলে দিয়ে নয়।
৫. যে কারণে কোস্ট ট্রাস্ট আন্তর্জাতিক সকল গুরুত্বপূর্ণ নেটওয়ার্কের সদস্য যেমন, ICVA, CHS Alliance, ALNAP, ADRRN, APRRN, APMDD ও A4EP. পাশাপাশি, UN IASC-OPAG এ উন্নয়নশীল দেশের CSO/NGO দের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করে চলছে।
৬. উপরোক্ত আলোকে, Malteser International (MI) যখন প্রস্তাব করে Local NGO Develop করার বিশ্বব্যাপী একটি প্রকল্পের অংশ হওয়ার জন্য, তখন আমরা রাজি হই। এতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আমাদের কথা বলার সুযোগ যেমন বাড়িয়ে দিবে, পাশাপাশি Capacity Approach এ আমাদের প্রমান করার সুযোগ করে দেবে বৈ কি।
৭. উল্লেখ করার প্রয়োজন আছে যে, এটা বিশ্বব্যাপী প্রকল্পের একটি অংশ। এই প্রকল্পের আওতাধীনে বাংলাদেশ সহ কলাম্বিয়া, কংগো, ইথিওপিয়া, ইন্দোনেশিয়া, মায়ানমার , পাকিস্তান ও সোমালিয়াতেও একই রকম কাজ করবে। এটা কারিতাস-জার্মানী, ডায়াকোনিয়া, মাল্টিজার ইন্টারন্যাশনাল ও Welthungerhilfe এর একটি যৌথ প্রকল্প। প্রতিটি দেশ থেকে ৫টি এনজিও (সচিবালয় এনজিও সহ) নিয়ে কাজ করবে। দেখায়ে দিতে হবে যে, ৫টি এনজিও INGO এর মতো সক্ষমতা দেখাতে সক্ষম। ইতোমধ্যে, বাংলাদেশে মাল্টিজার ইন্টারন্যাশনাল প্রকল সমন্বয়ক হিসেবে একজন বিদেশীকে নিয়োগ দিয়েছে।
সবচেয়ে বড় কথা, এর অর্থ দিচ্ছে ইউরোপের অন্যতম শক্তিশালী রাজনীতি ও অর্থনীতির দেশ জার্মানী। এইটা তাদের প্রথম প্রকল্প স্থানীয়করণের ক্ষেত্রে। ইউরোপীয় ইউনিয়নকে প্রভাবিত করতে হলে, জার্মানীকে প্রভাবিত করতে হবে। মাল্টিজার ইন্টারন্যাশলান স্থানীয়করণের ক্ষেত্রে একটি স্থানীয় NGO নিয়েছে, তারা কোন INGO নেয়নি। এখানে যদি আমরা ভালো কাজ করি, স্থানীয় এনজিও দের মাধ্যমে স্থানীয় এনজিওদের সক্ষমতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে ভালো নজির তৈরি করতে পারবে।
৮. এটা এমন প্রকল্প নয়, কোস্ট এখানে নেতৃত্ব থাকবে। এটা মাল্টিজার ইন্টারন্যাশনাল এর সাথে যৌথ প্রকল্প। এখানে মাল্টিজার ইন্টারন্যাশনাল তাদের দ্বারা নিয়োজিত একজন বিদেশি প্রকল্প ম্যানেজার হিসেবে থাকবে। কোস্ট ট্রাস্ট শুধুমাত্র সচিবালয় হিসেবে কাজ করবে। এক্ষেত্রে আমাদের দ্বিমত থাকলেও, আমরা কাজ শুরু করার জন্য যৌথ কাজের ভালো নজির ও শিক্ষনের জন্য প্রকল্পটিকে ক্ষেত্র হিসেবে নিয়েছি।
৯. আমরা চেষ্টা করেছি, দেশের আটটি ডিভিশন নেওয়ার জন্য। কিন্তু মাল্টিজার ইন্টারন্যাশনাল তাদের বিভিন্ন বিশ্লেষণের মাধ্যমে ৫টি ডিভিশন (চট্টগ্রাম, বরিশাল, খুলনা, রংপুর, ময়মনসিংহ) -কে বেছে নিয়েছে। যেখানে কোস্টসহ ৫টি এনজিও কাজ করবে তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি করার জন্য । এনজিও নির্বাচনের সকল Assessment তারা করবে। উল্লেখ্য যে, BDCSO Process এখান থেকে কোন টাকা যেমন নেবেন না বা BDCSO Process এই প্রকল্পের কোন ভাবেই কোন অংশ নয়।
১০. আমরা মনে করি, এটা আমাদের মতো স্থানীয় এনজিওদের সক্ষমতা দেখানো ও জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে এভভোকেসির ক্ষেত্রে পারংগমতা দেখানোর জন্য এই প্রকল্প একটি বাতায়ন তৈরি করবে।
রেজাউল করিম চৌধুরী
২৪ নভেম্বর ২০২০

[বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন]

Social Sharing

Leave A Reply